Ithelpbd.com is Bangla Online Tech Community website.

কিভাবে ছুটির দিনের অবসর সময়কে কাজে লাগাবেন?

88 views
if you like please share this postShare on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin

রথমেই হৃদয় থেকে কৃতজ্ঞতা এবং শ্রদ্ধা সকল শ্রমিকদের প্রতি যাদের কারণে পৃথিবীটা আজ এত সুন্দর, যাদের কারণে আমাদের পেটে অন্ন যুটে। যাইহোক, আজ আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করব, কিভাবে ছুটির দিনের অবসর সময়কে কাজে লাগাতে পারেন এই বিষয়ে। 🙂

 


এর মানে হচ্ছে Do it yourself. আমাদের হাতের কাছের বিভিন্ন জিনিসকে ব্যবহার করেই আমরা তৈরি করতে পারি অনেক নিতৃ-নতুন সৃজনশীল জিনিস। 🙂 যেমন, আলুকে ব্যবহার করে ব্যাটারি বানানো, কাগজ দিয়ে ঘুড়ি বানানো, ছোট রকেট বানানো, পানির পাম্প বানানো। এই কাজগুলো করে যেমন বিনোদন পাওয়া যায় তেমনি নতুন নতুন জিনিসও শেখা যায়। গুগুলে কিংবা ইউটিউব Diy projects সার্চ দিলেই অনেক আইডিয়া পেয়ে যাবেন। 🙂 গত সাপ্তাহে আমি পানির পাম্প বানিয়ে খুব আনন্দ পেয়েছিলাম। 🙂

বাগান করাঃ


অবসর সময়কে বাগান করার কাজে ব্যয় করার মত ইন্টারেস্টিং আর কিছুই হতে পারে না। 🙂 ছাদের উপর কিংবা বাড়ির আসে পাশে খালি জায়গা থাকলে আজই বাগান করার কাজে লেগে যান। 🙂 ছাদের উপর বাগান করার ব্যাপারে গুগুলে সার্চ দিলেই অনেক ইনফর্মেশন পেয়ে যাবেন। 🙂

ইংরেজির স্কিল ডেভেলপ করাঃ


আমাদের অনেকরই মাঝে ইংরেজির ব্যাপারে দুর্বলতা রয়েছে। ইচ্ছে করলেই ছুটির দিনে আমরা আনন্দের সাথেই ইংরেজি শেখা শুরু করতে পারি। 🙂 এখনই একটি সাবটাইটেলসহ ইংরেজি মুভি দেখতে বসে যান, আর ব্রাউজারে গুগুল ট্রান্সলেট ওপেন করুন। 🙂 কোন শব্দ বুঝতে না পারলেই ট্রান্সলেশন বের করে নিন। আর ডেভেলপ করুন আপনার ইংরেজি স্কিল। 🙂

ডিজিটাল স্কিল ডেভেলপ করাঃ


বর্তমান বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে হলে অবশ্যই আপনাকে কম্পিউটারের বিভিন্ন কাজে দক্ষ হতে হবে। আর দক্ষতা বৃদ্ধি করার জন্য ছুটির দিনকে কাজে লাগানোই বুদ্ধিমানের কাজ। আজই ভিডিও ইডিটিং, গ্রাফিক্স ডিজাইনিং, এক্সেল কিংবা পাওয়ারপয়েন্ট এর কাজ শেখা শুরু করতে পারেন। 🙂

পাবলিক স্পিকিংঃ


পাবলিক স্পিকিং মানে হচ্ছে সবার সামনে কিছু বলা। আমরা অনেকেই জনসম্মুখে কিছু বলতে ভয় পাই। কিন্তু আমাদের বাস্তব জীবনে পাবলিক স্পিকিং খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি জিনিস। যখন আমাদের কথা মনোযোগ দিয়ে পাবলিক শুনে তখন আসলেই অন্যরকম ভালো লাগা কাজ করে। এখনই আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে জান, নিজেই নিজেকে কিছু বলা চেষ্টা করুণ। এভাবে নিয়মিত চালিয়ে যান। বেপারটা অনেকটা পাগলামি মনে হতে পারে কিন্তু এটিই আপনাকে একজন ভালো মানের পাবলিক স্পিকার বানাতে সাহায্য করবে। 🙂

লেখালিখির স্কিল ডেভেলপ করাঃ


লেখালিখি করা আসলেই অনেক মজার। নিজের জানা কিছু সবার সাথে শেয়ার করা জন্য লেখালিখিই সবচেয়ে ভালো মাধ্যম। নিজের লেখা শেয়ার করার জন্য, আমাদের সামনেই অনেক বিশাল এক প্লাটফর্ম হচ্ছে ফেসবুক। প্রথমে হয়ত গুছিয়ে লিখতে পারবেন না কিংবা অনেক ভুল হবে। কিন্তু আস্তে আস্তে সবই ঠিক হয়ে যাবে। 🙂 ত ছুটির দিনের অবসর সময়ে লেখালিখির কাজ শুরু করে দিন।;)

ইউটিউব ভ্লগিং করাঃ


বর্তমানে ভ্লগিং এর সাথে অনেকেই পরিচিত। 🙂 ইউটিউবে গেলেই আমরা এইসব ভিডিও দেখতে পাই। আপনিও শুরু করতে পারেন ভ্লগিং। এর জন্য বেশি কিছু প্রয়োজন নেই। শুধু মাত্র আপনার স্মার্টফোনটি হলেই হবে। 🙂 প্রথম প্রথম কথা বলার সময় হয়ত জড়তা থাকবে এবং ভিডিও এর মান ভালো হবে না। নিয়মিত কাজ চালিয়ে গেলে এক সময় সবই ঠিক হয়ে যাবে। এখনই স্মার্টফোনের ফ্রন্ট ক্যামেরা অন করুণ আর শুরু করে দিন ভ্লগিং করা।;)

ধন্যবাদ সবাইকে, আশা করি ছুটির দিনের অবসর সময়টিকে আপনি স্কিল ডেভেলপমেন্টের কাজে ব্যয় করা শুরু করে দিয়েছেন। 🙂 লেখাটি ভালো লাগলে প্লিজ শেয়ার করতে ভুলবেন না। 🙂

আপনার মন্তব্য আমাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূন । তাই আপনার মতামত দিন !!

if you like please share this postShare on Facebook
Facebook
0Share on Google+
Google+
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin