Ithelpbd.com is Bangla Online Tech Community website.

অনলাইনেই মিলছে শখের পোষা প্রাণী

131 views

নাকের জল চোখের জল এক করেও নাগরিক জীবনে পশুপাখি পোষেন অনেকে।

দেখাদেখি অন্যরাও সংগ্রহ করতে চান। মিলবে কোথায়- এমন প্রশ্নে থেমে যান কেউ কেউ। সেই সমস্যার সমাধান হচ্ছে এখন অনলাইনেই।

কেননা শখ পূরণ বলে কথা। শত ঝামেলা এড়িয়ে, নাগরিক জটিলতা কাটিয়ে বিচিত্র সব শখ মেটাতে চেষ্টার কমতি থাকে না। পশুপাখি পোষার মতো কাজেও থেমে যেতে চান না তারা।

এমন যাদের বাসনা- তাদের জন্য পেটশপে না গিয়ে ঘরে বসেই ছবি দেখে পছন্দের প্রাণী বাছাইয়ের সুযোগ থাকছে। বিভিন্ন অনলাইন উদ্যোগের কল্যাণে তারা শখ পূরণের প্রথম ধাপে পার করতে পারছেন নির্বিঘ্নেই।

কবুতর, মাছ, বিদেশি কুকুর, বিদেশি বিড়াল ও খরগোশসহ অনেক প্রাণীই ‌এখন অনলাইন থেকে কেনা যায়। চাইলে অনলাইন থেকে অসহায় প্রাণী দত্তকও নেওয়া যায়। কোন কোন পেইজ বা ওয়েবসাইট থেকে প্রাণী কেনা যাবে দত্তক নেওয়া যাবে তা নিয়েই থাকছে এবারের ফিচার।

ক্যাট লাভারস অব বাংলাদেশ

বিশ্বে কত ধরণের বিড়াল আছে সে বিষয়ে কিছুটা ধারণা পাওয়া যাবে ফেইসবুক পেইজটি থেকে। এখানে বিক্রি করা বাহারি নাম ও রঙের বিড়ালগুলো বিদেশ থেকে আনানো হয়ে থাকে। বিড়ালের প্রজাতি কতোটা বিরল তার উপর নির্ভর করে দাম। যেমন নীল চোখের র‍্যাগডল প্রজাতির বিড়ালগুলো স্বভাবের দিক বেশ ভদ্র হয়ে থাকে। রঙ, আকার, স্বভাব সব মিলিয়ে এদের দামও বেশি হয়।

ক্যাট লাভারস অব বাংলাদেশ পেইজটির মালিক সানজানা শাহিন জানালেন, বিড়ালের দাম কতো হবে তা বিভিন্ন বিষয়ের উপর নির্ভর করে। সর্বনিম্ন ২০ হাজার থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ নয় লাখ টাকার বিড়ালও বিক্রি করেছেন বলে জানান তিনি।

সানজানা আরও জানান, বিড়াল ডেলিভারি দেওয়া হয় না। নিতে চাইলে ক্রেতাদেরকে তার কাছে আসতে হয়। সব বয়সী ক্রেতাই বিড়াল কেনেন। বিশেষ করে যাদের ছোট বাচ্চা আছে তারা বিড়াল কিনতে বেশি আগ্রহী।

অ্যাঙ্গরি বার্ডস বিডি পেট শপ

এই পেইজে বিভিন্ন রকমের পাখি পাওয়া যায়। বাহারি রঙের এসব পাখির মধ্যে আছে লক্ষাধিক টাকার প্যারোটও আছে। প্রয়োজন অনুযায়ী এখানে বিভিন্ন বয়সের ও লিঙ্গের পাখি পাওয়া যায়। শুধু পাখি নয় পাখির বাচ্চাও বিক্রি হয় এখানে।

ডগ লাভারস ঢাকা

সাইবেরিয়ান হাস্কি জাতের কুকুরই বেশি বিক্রি করা হয় ফেইসবুক পেইজটিতে। কুকুর ছানা নিতে চাইলে লিঙ্গ ভেদে দামের পার্থক্য থাকবে। ৩ মাস বয়সী ছানা নিতে চাইলে দাম পড়বে ৬৫ থেকে ৭০ হাজার টাকা। চাহিদা বুঝে প্রি-অর্ডারও নেওয়া হয় পেইজটিতে। বিদেশ থেকে আমদানি করা কুকুরগুলোর বেশিরভাগেরই দাম পেইজটিতে লেখা নেই। দামের বিষয়ে জানতে হলে পেইজটির মালিকের সঙ্গে ইনবক্সে বা ফোনে যোগাযোগ করতে হবে।

বিক্রিয় ডটকম

যাদের কবুতর পালার শখ আছে তারা বিক্রয় ডটকমে ঢুঁ মারতে পারেন। এখানে বাহারি ধরণের কবুতর, টিয়া, ময়না ও ঘুঘু পাখি পাওয়া যাবে। এক জোড়া খরগোশ মিলবে হাজার টাকার মধ্যে। পারশিয়ান বিড়াল ও ম্যাকাও পাখিও পাওয়া যাবে ওয়েবসাইটটির পেট সেকশনে। বিভিন্ন ধরণের পেট অ্যাক্সেসরিজের মধ্যে মিলবে মাছের অ্যাকুয়ারিয়াম, কবুতরের খোপ, ডিজিটাল ইনকিউবেটর ও বিভিন্ন আকৃতির খাঁচা।

অভয়আরণ্য বাংলাদেশ অ্যানিমেল ওয়েল ফেয়ার ফাউন্ডেশন

হারিয়ে যাওয়া কিংবা দুর্ঘটনার শিকার হওয়া প্রাণীদের উদ্ধার করে সেবা দেয় অলাভজনক প্রতিষ্ঠানটি। উদ্ধার করা কুকুর বা বিড়াল সুস্থ হয়ে উঠলে তাদের দত্তক নেওয়ার আহবান জানিয়ে ছবিসহ পোস্ট দেওয়া হয় তাদের ফেইসবুক পেইজে। ফাউন্ডেশনটি প্রাণীর প্রতি নির্মমতার বিরুদ্ধে বেশ সোচ্চার।

এর পাশাপাশি অসুস্থ বা দুর্ঘটনার শিকার প্রাণীদের জন্য ক্লিনিক‌ও পরিচালনা করে সংস্থাটি।

ক্লিনিকের চিকিৎসক সামিউল হক জানান, কোথাও কোনো প্রাণী নির্মমতার শিকার হলে বা আহত হয়ে অসহায় অবস্থায় থাকলে তারা সেটির দায়িত্ব নিতে চান। এ জন্য তাদের ফোনে (০১৭১৬৬৮২১৩০) শুধু জানালেই হবে। তিনি জানান, প্রাণীদের নিরাপদ রাখতে ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের সঙ্গে একটি চুক্তিও আছে তাদের।

আপনাদের মতামত আমাদের কাছে অনেক গুরুত্বপূর্ন । তাই প্লিজ আপনার মতামত কমেন্ট করুন, ধন্যবাদ !!!

avatar
  Subscribe  
Notify of